BANGLADESH
Welcome to Detailsbd.com

পদ্মা সেতু অনুচ্ছেদ - PDF সহ সবার জন্য (ফুল মার্কস)

Category - 
ghore bose spoken english
২৮% ডিসকাউন্টে পেতে আজই এই লিংক থেকে কোর্সটি কিনুন
সবগুলো রচনা দেখতে এখানে ক্লিক করুন
4.6/5 - (10 votes)

স্বপ্নের পদ্মা সেতু অনুচ্ছেদ রচনা টি ২০২৩-২০২৪ সালের SSC, HSC শিক্ষার্থী সহ প্রায় সকল শ্রেণীর জন্য ফুল মার্কস পাবার উপযোগী করে লেখা হয়েছে।

এখানে পাবেন একই সাথে তিনটি রচনা।

  • স্বপ্নের পদ্মা সেতু - অনুচ্ছেদ রচনা (১০০ শব্দ)
  • পদ্মা বহুমুখী সেতু - অনুচ্ছেদ রচনা (২০০ শব্দ)
  • বাংলার বিস্ময় পদ্মা সেতু - অনুচ্ছেদ রচনা (৩০০ শব্দ)

অনুচ্ছেদ রচনা: স্বপ্নের পদ্মা সেতু

স্বপ্নের পদ্মা সেতু অনুচ্ছেদ টি ১০০ শব্দ দিয়ে বানানো যা সকল শ্রেণীর জন্য ফুল মার্কস পাবার উপযোগী করে লেখা হয়েছে।

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত একটি বহুমুখী সেতু। এটি বাংলাদেশের বৃহত্তম সেতু এবং দক্ষিণ এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম সেতু। সেতুটি পদ্মা নদীর উপর নির্মিত হয়েছে এবং এটি মুন্সীগঞ্জ ও শরীয়তপুর জেলাকে যুক্ত করেছে। পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬.১৫ কিলোমিটার, প্রস্থ ১৮.১০ মিটার এবং উচ্চতা ১৬২ মিটার। সেতুটিতে চারটি লেন রয়েছে এবং এটি প্রতিদিন ১০ হাজার যানবাহন বহন করতে সক্ষম। পদ্মা সেতুর নির্মাণ ব্যয় ১০ হাজার কোটি টাকা। সেতুটি ২০২২ সালের ২৫ জুন উদ্বোধন করা হয়। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক প্রভাব ফেলবে। এটি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থাকে উন্নত করবে এবং এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের একটি জাতীয় গৌরব। এটি বাংলাদেশের মানুষের অদম্য সাহস ও সংকল্পের প্রতীক।

আরও পড়ুন  ডিজিটাল বাংলাদেশ রচনা ১৫ পয়েন্ট

অনুচ্ছেদ রচনা: পদ্মা বহুমুখী সেতু

পদ্মা বহুমুখী সেতু অনুচ্ছেদ টি ২০০ শব্দ দিয়ে বানানো যা সকল শ্রেণীর জন্য ফুল মার্কস পাবার উপযোগী করে লেখা হয়েছে।

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের একটি স্বপ্নের সেতু। এই সেতুটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলকে ঢাকার সাথে যুক্ত করেছে যা বাংলাদেশের একটি ঐতিহাসিক অর্জন। বলা হয়ে থাকে যে, “পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য প্রতি এক টাকা খরচের বিপরীতে দুই টাকা লাভবান হবে বাংলাদেশ।”

৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দক্ষিণ এশিয়ার দীর্ঘতম দ্বিতল সেতু পদ্মা সেতু বাঙ্গালি জাতির স্বপ্ন, গৌরব ও অহংকারের প্রতীক। ৪২টি পিলারের উপর দাঁড়িয়ে থাকা দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের ২১ জেলাকে যুক্ত করেছে এই সেতু।

২০২২ সালের ২৫ জুন উদ্বোধন হওয়া বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়িত দেশের সর্ববৃহৎ প্রকল্প এটি। পদ্মা নদীর উপর নির্মিত এই সেতুটি মুন্সীগঞ্জ জেলার সাথে শরীয়তপুর জেলাকে যুক্ত করেছে। ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর মূল পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এই সেতু নির্মাণে মোট খরচ করা হয় ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা। বিশ্বব্যাংকের মতে, আগামী ৩১ বছরে যোগাযোগ খাতে পদ্মা সেতু থেকে আয় হবে ১৮.৫ বিলিয়ন ডলার (নির্মাণ খরচের ৫.৫ গুণ)। বিভিন্ন প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ সেতুকে কেন্দ্র করে ২০৩০ সালের ভেতর প্রায় ৫ কোটি লোকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে দারিদ্র্যের হার প্রায় ১ শতাংশের বেশি কমবে এবং সামগ্রিক জিডিপি১.২৩ শতাংশ বাড়বে। পরিশেষে বলা যায় যে, প্রায় দুই যুগের প্রচেষ্টার ফসল পদ্মা সেতু আজ বাস্তবে রূপ নিয়েছে। সব ষড়যন্ত্র, বাধা-বিপত্তি কাটিয়ে পদ্মা সেতু আজ বাস্তবায়িত। এই সেতু আমাদের গর্ব।

আরও পড়ুন  অধ্যবসায় রচনা ১০ পয়েন্ট - Pdf

অনুচ্ছেদ রচনা: বাংলার বিস্ময় পদ্মা সেতু

বাংলার বিস্ময় পদ্মা সেতু অনুচ্ছেদ টি ৩০০ শব্দ দিয়ে বানানো যা সকল শ্রেণীর জন্য ফুল মার্কস পাবার উপযোগী করে লেখা হয়েছে।

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের একটি স্বপ্নের সেতু। এই সেতুটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলকে ঢাকার সাথে যুক্ত করেছে, যা বাংলাদেশের অর্থনীতি, যোগাযোগ ও উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে ঢাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। এটি বাংলাদেশের একটি ঐতিহাসিক অর্জন।

বলা হয়ে থাকে যে, “পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য প্রতি এক টাকা খরচের বিপরীতে দুই টাকা লাভবান  হবে বাংলাদেশ”।৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দক্ষিণ এশিয়ার দীর্ঘতম দ্বিতল সেতু পদ্মা সেতু বাঙ্গালি জাতির স্বপ্ন, গৌরব ও অহংকারের প্রতীক। ৪২টি পিলারের উপর দাঁড়িয়ে থাকা দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের ২১ জেলাকে যুক্ত করেছে এই সেতু। ২০২২ সালের ২৫ জুন উদ্বোধন হওয়া বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়িত দেশের সর্ববৃহৎ প্রকল্প এটি। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলার মাওয়া এবং শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের সঙ্গে সংযুক্ত হয়েছে।

আরও পড়ুন  আমার জীবনের লক্ষ্য রচনা - Class 3, 4, 5, 6, 7

২০১৪ সালের ১৭ জুন পদ্মা বহুমুখী সেতুটি নির্মাণে চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করে সেতু বিভাগ। ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর মূল পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সেতু নির্মাণে মোট খরচ করা হয় ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা। 

বিশ্বব্যাংকের মতে, আগামী ৩১ বছরে যোগাযোগ খাতে পদ্মা সেতু থেকে আয় হবে ১৮.৫ বিলিয়ন ডলার (নির্মাণ খরচের ৫.৫ গুণ)। এছাড়া সামাজিক অগ্রগতি ও অর্থনীতিতে ২৫ বিলিয়ন ডলার যোগ করবে। যে জমি রক্ষা হয়েছে তার মূল্য প্রায় ১ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। সেতুর মাধ্যমে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও ইন্টারনেট লাইন গিয়ে সাশ্রয় করবে ২,৪০০ কোটি টাকা। ফেরি চলাচল না হওয়ায় খরচ সাশ্রয় হবে ৩,৬০০ কোটি টাকা। বিভিন্ন প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ সেতুকে কেন্দ্র করে ২০৩০ সালের ভেতর প্রায় ৫ কোটি লোকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে দারিদ্র্যের হার প্রায় ১ শতাংশের বেশি কমবে এবং সামগ্রিক জিডিপি ১.২৩ শতাংশ বাড়বে।

পরিশেষে বলা যায় যে, প্রায় দুই যুগের প্রচেষ্টার ফসল পদ্মা সেতু আজ বাস্তবে রূপ নিয়েছে। সব ষড়যন্ত্র, বাধা-বিপত্তি কাটিয়ে পদ্মা সেতু আজ বাস্তবায়িত। এই সেতু আমাদের গর্ব।

অনুচ্ছেদ রচনা গুলো ভালো লাগলে ও প্রয়োজনে কাজে আসলে অবশ্যই কমেন্ট এ থ্যাংক ইউ লিখবেন।

 Share this post from here. 

Related Posts

২ comments on “পদ্মা সেতু অনুচ্ছেদ - PDF সহ সবার জন্য (ফুল মার্কস)”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Detailsbd.com একটি মাল্টিনিশ বাংলা ব্লগ সাইট যেখানে মূলত ব্লগিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, ব্যবসা, টেকনোলজি, ও পড়াশোনা রিলেটেড বিষয়বস্তু নিয়ে লেখা হয়। এটি শুরু করা হয় ২০১৮ সালের মে মাসের দিকে। এই সাইট টি আমার প্রথম ওয়েবসাইট তাই অনেক বাধা বিপত্তি সত্বেও আমি এই সাইটটিকে আমার কাছে রেখে দিয়েছি। আমার লেখা কোনো আর্টিকেল পড়ে যদি আপনাদের ভালো লাগে অথবা মন্দ লাগে তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।
ধন্যবাদ সবাইকে।

linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram