ডাটা এন্ট্রি কি? Data entry jobs online

ডাটা এন্ট্রি বলতে বোঝায় বিভিন্ন তথ্য ও উপাত্য কে একটা যায়গায় প্রবেশ করানো বা কালেকশন করা। মূলত কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক ডাটা বা তথ্যকে একটা ডিজিটালি এক জ

ডাটা এন্ট্রি বলতে বোঝায় বিভিন্ন তথ্য ও উপাত্য কে একটা যায়গায় প্রবেশ করানো বা কালেকশন করা। মূলত কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক ডাটা বা তথ্যকে একটা ডিজিটালি এক জায়গায় রাখাকে ডাটা এন্ট্রি বলে।


ডাটা এন্ট্রি - Data entry 


ডাটা এন্ট্রি জব এখন আর নতুন কিছু না। দুনিয়াব্যাপি কম্পিউটার যেমন খুব দ্রুত এক অফিসিয়াল আত্যবশ্যকীয় ডিভাইস হয়ে দাড়িয়েছে , তেমনি ডাটা এন্ট্রি জব ও ঠিক একই পথ ধরে এগুচ্ছে।

তো অলরেডি যারা ডাটা এন্ট্রি কাজ করছেন,তাদের জন্য ডাটা এন্ট্রি জব এর ইন্ট্রুডাকশন আসলে একেবারেই হাস্যকর! কিন্তু এ সেক্টরে যারা আসার চিন্তা করছেন, অর্থাৎ নিউকামার তাদের জন্য কিন্তু ডাটা এন্ট্রি জব কি এবং কীভাবে এই জব থেকে টাকা আয় করা যায় এটা জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তো প্রিয় পাঠক, আমাদের আজকের সেশন -ডাটা এন্ট্রি কি? ডাটা এন্ট্রি করে আয় শীর্ষক শিরোনামে চলুন তাহলে শুরু করা যাক ডাটা এন্ট্রির আদি অন্ত সবকিছু।
ডাটা এন্ট্রি কি? মোবাইলে data entry করে আয়

ডাটা এন্ট্রি কি?

প্রথম এবং খুবই জরুরি প্রশ্ন, ডাটা এন্ট্রি আসলে কি! খুব সাধারণ ভাবে যদি বলি-ডাটা এন্ট্রি হলো কম্পিউটার ব্যবহার করে একটি সোর্স থেকে ডাটা আরেকটি সোর্চ এ টাইপ করা। ডাটা এন্ট্রি প্রফেশনাল যারা, তারা কম্পিউটার এবং ডাটা প্রসেসিং প্রোগ্রাম এর মাধ্যমে যেকোন ডাটাবেজ অথবা ডকুমেন্টেশন প্ল্যাটফর্মে কাঙ্ক্ষিত তথ্য কে প্রবেশ করায়। আরো সহজ করে বললে, ডাটা এন্ট্রি জব হলো যে কোন তথ্য টাইপ করা কোন ইলেকট্রনিক ফরম্যাট যেমন, ওয়ার্ড প্রসেসিং, স্প্রেডশিট, অতজবা অন্যান্য বিশেষ কোন সফটওয়্যার এ।

ডাটা এন্ট্রি জবের উদাহরণ যদি দেখতে চান, ট্রান্সক্রাইবিং, কাস্টমারদের যে কোন তথ্য আপডেট, যে কোন ডাটা ইনপুট নিয়ে কাজ করা, এরকম আরো বহু রয়েছে।

ডাটা এন্ট্রি কাজের প্রকারভেদ

ডাটা এন্ট্রির রয়েছে বিচিত্র সব প্রকারভেদ। অনলাইন বলেন অথবা অফ্লাইন বলেন সমস্ত ডাটা এন্ট্রির কাজ কে আমরা নিন্মোক্ত ভাবে কভার করতে পারি-

  1. সাধারণ ডাটা এন্ট্রির কাজ যেমন-পিডিএফ ফাইল থেকে দেখে দেখে এম এস ওয়ার্ডের ফাইল বানানো। এবং এসব কাজেও আপনি পার পেজ হিসেবে সর্বোচ্চ ৫০ ডলার ও আয় করতে পারবেন।
  2. ওয়ার্ড প্রসেসর / টাইপিস্ট।
  3. অনলাইন ফর্ম পুরন করা।
  4. অনলাইন সার্ভের কাজ করা।
  5. রি-ফরম্যাটিং বা সংশোধনের কাজ করা।
  6. এডিটিং অথবা ফরম্যাটিং এর কাজ।
  7. কপি পেস্ট এর কাজ।
  8. ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ।
  9. ক্যাপশনিং এর কাজ।
  10. ইমেজ টু টেক্সট ডাটা এন্ট্রি র কাজ।
  11. অডিও টু টেক্সট এর কাজ।
  12. মেডিকেল ট্রান্সক্রিপশনিস্ট এর কাজ।
  13. মেডিকেল কোডিং এর কাজ।
  14. ইমেইল প্রসেসিং।
  15. ডাটাবেজ আপডেট করা।
  16. ক্যাটালগ ডাটা এন্ট্রি করা।
  17. পে-রোল ডাটা এন্ট্রি করা।
  18. কপিরাইটিং।

ডাটা এন্ট্রি জব কাদের জন্য ?

যে কেউ ই এই কাজ করতে পারবে এটা ভাবা অনুচিত। তবে এটাও ঠিক এই জব করতে তেমন কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা অথবা আহামরি কোন নলেজ থাকার দরকার নেই। যেসব লোকেরা ওয়ার্ক ফ্রম হোম অপশন খুঁজে বেড়াচ্ছেন তাদের জন্য এই সেক্টর টি পার্ফেক্ট হতে পারে।কম দক্ষতা সম্পন্ন লোকেরাও ওই কাজ করতে পারে যদি মনোবল তাদের দৃঢ় থাকে।গৃহিনী, অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কর্মচারী, শিক্ষার্থী, এমনকি উচ্চশিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীরা ও এই কাজ করে সাবলীলভাবে তাদের বেকারত্ব ঘোচাতে পারে। তবে শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে খুব প্রয়োজন না হলে আমরা যে কোন অনলাইন ভিত্তিক কাজের নিরুৎসাহিত করি।যেহেতু পড়াশোনার ক্ষতি হওয়ার আশংকা থাকে।

ডাটা এন্ট্রি জব করতে কি কি লাগে?

প্রশ্নটা একেবারে কমন,কি কোয়ালিফিকেশন অথবা এক্সেসরিজ লাগে এই জব টি করতে। এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে চলুন দেখি একজন ডাটা এন্ট্রি প্রফেশনাল এর ডিউটি অথবা রেসপনসেবলিটি গুলো কি কি-

  1. ডাটা এন্ট্রি করার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস তৈরী করা এবং বাছাই করা।
  2. বাছাই করা ডাটা গুলোকে ডাটাবেজ সফটওয়্যার এ প্রবেশ করানো এবং চেক করা, কতটা নিখুঁত ভাবে ডাটা গুলো প্রবেশ করানো হয়েছে, ( দ্যাট মিনস, ডাটা গুলো ইনপুট করা হয়েছে)।
  3. কোন ভুল অথবা অমিল পেলে তা ঠিক করা এবং পুনরায় সমস্ত ইনফরমেশন চেক করে ডকুমেন্টস টা সম্পুর্ন করা।
  4. ইনপুট দেওয়া ডাটা গুলোর ব্যাক আপ রাখার জন্য প্ল্যান করা।
  5. কোন রিলেটেড পার্সোন এর কাছ থেকে ইনপুট দেওয়া ডাটা গুলো সম্পর্কে কোন জিজ্ঞাসা থাকলে তা সমাধান করা।
  6. এবং ফাইনালি, নতুন ডাটাবেজ সিস্টেম এবং সফটওয়্যার আপডেট সবসময় পরীক্ষা করা।

এবার আসুন ডাটা এন্ট্রি জবের কোয়ালিফিকেশন এবং রিকোয়ারমেন্ট সম্পর্কে।

মঝার ব্যাপার হলো এই জবের জন্য ম্যাক্সিমাম কোম্পানি আপনার কাছ থেকে কোন ফর্মাল এডুকেশনাল সার্টিফিকেট চাইবে না।তবে এটা ঠিক,প্রায় সমস্ত কোম্পানিই,ডাটা এন্ট্রি জবে আপনার ক্যাপাবিলিটি অথবা স্কিল টা দেখবে। আপনি যত বেশি স্কিলড জবেন, তত ইফেক্টিভলি আপনার ডাটা ইনপুট এর কাজ টি সম্পন্ন করতে পারবেন।

তো যা যা লাগবে এই কাজ করতে-

  1. কম্পিউটার অপারেটিং সম্পর্কে জানতে হবে, পাশাপাশি বিভিন্ন কম্পিউটার প্রোগ্রাম যেমন মাইক্রোসফট অফিস, স্প্রেডশিট, প্রেজেন্টেশন এপস ইত্যাদি সম্পর্কে ভালো নলেজ।
  2. বিস্তারিত জানার এবং ধৈর্য্য ধরে কাজ সম্পন্ন করার মন মানসিকতা
  3. গ্রামার এবং পাংচুয়েশন সম্পর্কে বিস্তৃত জ্ঞান।
  4. ব্যাসিক কমিউনিকেশন স্কিল।
  5. একটি ভালো কম্পিউটার এবং হাই স্পিড ইন্টারনেট কানেকশন।
  6. ফার্স্ট টাইপিং স্পিড।

এবং নির্দিষ্ট সময়ে কাজ ডেলিভারি দেওয়ার এবং ক্লায়েন্ট এর ইন্সট্রাকশন যথাযথ ফলো করার মেন্টালিটি।

ডাটা এন্ট্রি জব কোথায় পাবেন?

ডাটা এন্ট্রি জব কি,কীভাবে করবেন সব জানলেন কিন্তু যদি হাতে কাজ না পান,লাভ কি হলো! আজকের সেশনে আমি ৫ টি রিলায়েবল ডাটা এন্ট্রি জব পাওয়ার সাইট নিয়ে আলোচনা করবো যারা আপনাকে ওয়ার্ক ফ্রম হোম ফ্যাসিলিটি তে ডাটা এন্ট্রির জব টি অফার করবে।

ডাটা এন্ট্রি জবের জন্য ৫ টি বেস্ট মার্কেটপ্লেস


আপওয়ার্কঃ

বলা হয়ে থাকে আপওয়ার্ক হলো মিলিয়ন মিলিয়ন ফ্রিল্যান্সার দের কাজের যোগানদাতা ওয়েবসাইট। এখানে রয়েছে অসংখ্য জব প্রোভাইডার যারা ডাটা এন্ট্রির জন্য লোকজন খুঁজেন। আপনাকে প্রথমে যা করতে হবে,আপওয়ার্কে আপনার একাউন্ট এপ্রুভ করাতে হবে। এরপর আপনার ডিটেইলস আপনার প্রোফাইল এ এড করতে হবে।

ফাইবারঃ

আপওয়ার্ক এর পরেই আরেকটা বেস্ট ফ্রিল্যান্সার ওয়েবসাইট হলো ফাইবার। ফাইবারে ও অসংখ্য ডাটা এন্ট্রির কাজ পাওয়া যায়। ফাইবারে রয়েছে হাজার হাজার ক্লায়েন্ট যারা ঘন্টাভিত্তিক চুক্তিতে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ দেয়। ফাইবারে জলদি একটা একাউন্ট খুলুন,এবং সুন্দর করে প্রফেশনাল, আই ক্যাচিং একটা গিগ বানান। আস্তে আস্তে আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত কাজ পেতে শুরু করবেন।

ইল্যান্সঃ

ইল্যান্স ( Elance) ও একদম টপ ফ্রিল্যান্সার সাইটের মধ্যে অন্যতম। এখানেও ডাটা এন্ট্রি অপারেটর দের রয়েছে সুবিশাল কাজের সুযোগ।অনেক বড় বড় কোম্পানি এই সাইটের মাধ্যমে তাদের ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ দেয়। এবং আপনি যদি সিনসিয়ারলি কাজ করেন, আপনার জব প্রোভাইডার আপনাকে হাই রেটিং দিবে যা কিনা খুন সহজেই পরবর্তী কাজ পেতে আপনাকে সাহায্যে করবে। তো প্রথমে আপনি লো বাজেট এ কাজ শুরু করতে পারেন এই সাইটে। কিছুদিনের ভেতর যখন আপনার পরিচিতি বেড়ে যাবে, বাজেট আস্তে আস্তে বাড়িয়ে দিবেন। বাজেট যাই নেন না কেন, কাজের কোয়ালিটি কিন্তু অবশ্যই হান্ড্রেড পারেসেন্ট মেইনটেইন করবেন।

বিভিন্ন ক্যাপচা এন্ট্রি সাইটঃ

ক্যাপচা এন্ট্রি সাইট গুলো তাদের ডাটা এন্ট্রি অপারেটর দের মান্থলি একটা মোটা অংকের টাকা ইনকাম করার সুযোগ দেয়। তবে এই কাজ করার পূর্বশর্ত হলো, আপনার টাইপিং স্পিড খুব ভালো হতে হবে। অসংখ্য ক্যাপচা এন্ট্রি জব প্রোভাইডার রয়েছে (যেমন, Kolotibablo,MegaTypers, Captcha Typers, ProTypers, Captcha2Cash, 2Captcha, Olinkgroup, VirtualBee, FastTypers,PixProfit ইত্যাদি)। আমি এখানে ১০টি ক্যাপচা এন্ট্রি সাইটের নাম বললাম। আপনি খুব সহজেই এইসব সাইটে সাইন আপ করে কাজ পেতে পারেন।

মাইক্রো জব সাইটসঃ

মাইক্রো সব সাইট গুলোতেও আপনি ডাটা এন্ট্রি অপারেটর হিসেবে কাজ করতে পারেন।এবং এসব কোম্পানিগুলো খুব সহজ কাজের জন্যও ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ দেয়, ফলে কম দক্ষতা সম্পন্ন লোকেরাও এইসব সাইটে আবেদন করতে পারে। ফাইবার অথবা আপওয়ার্কের মতন এইসব মাইক্রো জব সাইটে জব বিড করার কোন প্রয়োজনীয়তা নেই। তাই এখানে তুলনামূলক প্রতিযোগিতা কম,এবং আগে আসলে আগে ভিত্তিতে এই সাইট গুলোতে কাজ পাবেন।

পরিশেষে কিছু কথা

ডাটা এন্ট্রি জব কঠিন কিছু না।আর তাই চোখ কান ঠিকঠাক খোলা না রাখলে এই কাজ পাওয়াটাও বেশ দুস্কর। যেহেতু তুলনামূলক সহজ কাজ এবং তেমন কোন দক্ষতা অথবা সার্টিফিকেট এর দরকার পরে না, তাই এখানে প্রতিযোগিতা অনেক বেশি।

যাই হোক,আপনি যদি জানেন কোথায় এবং কীভাবে আপনার কাঙ্ক্ষিত ডাটা এন্ট্রির জব টি পাওয়া যায়, আপনার জন্য এই প্রতিযোগিতা তেমন কোন বাধার সৃস্টি করবেনা আশা করি।

তো এই হলো আমাদের আজকের ডাটা এন্ট্রির সেশন! আশা করি কমেন্ট করে জানাবেন আরো কোন ইনফরমেশন এখানে ইনক্লুড করার দরকার আছে কিনা।

ধন্যবাদ সবাইকে।